সব থেকে ভয়ঙ্কর হোয়াটসঅ্যাপ ম্যাসেজ ফিরে এসেছে ভারতে

0
64

আমরা তো প্রায় সবাই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করি ।
আপনারা হয়তো জানেন না এই হোয়াটসঅ্যাপ আপনার মোবাইলের ও আপনার কত বড় ক্ষতি করতে পারে?

সতর্ক তাকুন হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড নামের এই ভয়ঙ্কর ম্যাসেজ এর ব্যাপারে ।
আর বিরত তাকুন হোয়াটসঅ্যাপ এর জাল বা নকল ম্যাসেজ “ফরোয়ার্ড” করার থেকে ।
আসলে এটি শুধু একটি ম্যাসেজ নয় এটি হলো একটি ভাইরাস।

ভারতে প্রায় ২০০ মিলিয়নের বেশি মানুষ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন । যার ফলে হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড(GOLD ) ভাইরাস ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য হ্যাকাররা প্রধান লক্ষ্য হিসাবে ভারতকে বেঁচে নিয়েছে। যার অর্থ হচ্ছে ভারতীয় ব্যবহারকারীদের দ্বারা সর্বাধিক প্রভাব বিস্তারের সম্ভাবনা বেশি।

সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড নামের একটি ম্যাসেজ বেরিয়েছে যা নির্দিষ্ট কোন সূত্র ছাড়াই পাঠানো হয়। এই ম্যাসেজটি সাধারণত “ফরোয়ার্ড” ট্যাগের সাথে আসে। এই হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড ম্যাসেজটি আপনার মোবাইল কে হ্যাক করে দিতে পারে। হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে পারে আতঙ্ক ।

আগ্রহজনকভাবে,এই ম্যাসেজটির বিভিন্ন রূপ আছে। যেমন কিছু ম্যাসেজ আসবে আর আপনাকে লিঙ্ক ক্লিক করার জন্য বলা হবে , আর ক্লিক করা মাত্রই হ্যাক হয়ে যেতে পারে আপনার মোবাইল ফোন।
২০১৬ সালে প্রথমবার বেরিয়েছিল হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড নামের এই ভাইরাসটি ।

আপনাকে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করার জন্য অনুরোধ করা যেতে পারে, যার মাধ্যমে আপনার ব্যাঙ্ক থেকে টাকা বা ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করা যাবে । হয়তো আগেও বলেছি ,হোয়াটসঅ্যাপ গোল্ড ‘ভাইরাস’ এর বিভিন্ন ফর্ম আছে, যা বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আসতে পারে। ম্যাসেজটির আরেকটি প্রকার হলো একটি ভিডিও সম্পর্কে আপনাকে বলা যেতে পারে যাতে ক্লিক করলে আপনার মোবাইল বা ফোন ক্র্যাশ হয়ে যাবে।

আপনি কেবল হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) এর একটি ছবি লিঙ্ক ক্লিক করার মাধ্যমেও আপনার মোবাইল বা ফোন ট্র্যাক করা যেতে পারে।আপনারা হয়তো এটাও জানেন যে জাল ম্যাসেজ বা এই ধরণের ম্যাসেজ
বন্ধ করার জন্য একশো কুড়ি (১২০) কোটি টাকা ব্যায় করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। আর বর্তমানেও এর ওপর প্রচেষ্টা চলছে । সব শেষে আপনাদের কাছে অমার অনুরোধ রইলো, এই ধরণের ম্যাসেজ বা জাল ম্যাসেজ থেকে দূরে থাকবেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here