অপহরণের ভয়ে চলন্ত গাড়ি থেকে লাফ দিলেন দুই মহিলা

0
41

আমরা তো কোথাও যেতে হলেই ক্যাব বুক করি বা অটো বুক করে থাকি।
আমরা মনে করি সহজেই আমাদের গন্তব্যে পৌঁছে দেবে।
কিন্তু সেই ক্যাব কখনো কখনো আমাদের ক্ষতিরও কারণ হয়ে দাঁড়ায় ,সেটা আমরা প্রায়ই খেয়াল করি না । একটি ক্যাব বুক করে কাজ থেকে বাড়ি ফেরার সময় নিজেদের বাঁচাতে গাড়ির বাইরে লাফ দিলেন দুজন মহিলা।
শনিবার রাতে দেরি করে বাড়ি ফেরার পথে শহরের দক্ষিণাঞ্চলীয় শাখার একজন গাড়ি চালক দুজন মহিলাকে অপহরণ করার চেষ্টা করেন। চলন্ত গাড়ি থেকে দরজা খুলে লাফিয়ে পড়েন মহিলারা।
এধরণের ঘটনা কলকাতায় প্রায়ই ঘটে থাকে । বিশেষত মহিলাদের ক্ষেত্রে যারা স্থানীয় পরিবহনের উপর নির্ভর করে। তারা বিশেষ করে নির্দিষ্ট কিছু রুটে যেতেই ভয় পায়। যেমন- টালিগঞ্জ,ঠাকুরপুকুর রুটের মতো রুটগুলিতে । ওই মহিলা শনিবার রাতে ক্যাব বুক করেছিলেন প্রায় ০৮:৪০ মিনিটে । অনেক্ষন ধরে অটো খুঁজে না পেয়েই বুক করেছিলেন এই ক্যাবটি । আরো একজন মহিলাও ছিলেন গাড়িতে ।
সাধারণত ওনারা অটো করেই যাতায়াত করেন । দুর্ভাগ্যবসত এক অটো চালকের মৃত্যুর কারণে অটো চালকরা সেদিন অটো নিয়ে বেরোননি ।
সেই মহিলা বলেছেন ওনারা যখন হরিদেবপুর ও কেওড়াপুকুর বাজার অতিক্রম করেছিলেন, তখন ড্রাইভারটি ওনাকে স্পর্শ করার চেষ্টা করে এবং অশান্তি সৃষ্টি করে । তারপর গাড়িতে বসা অন্য মহিলা তার প্রতিবাদ করেন কিন্তু সে শুনতে চায়নি ।
আর যখনি ওনারা হরিদেবপুর পুলিশ স্টেশন অতিক্রম করেছিলেন তখন তিনি বলতে লাগলেন
“গাড়ি থামাও নইলে আমরা চিৎকার করবো” । সাহায্যের জন্য মহিলারা চিৎকার করে ঠাকুরপুকুর ক্যান্সার হাসপাতালের কাছে তারপর কবরডাঙার কাছাকাছি স্থানীয় দোকানদাররা এবং যারা বাইক ও অটোগুলিতে রাস্তায় ছিলেন তারা পেছনে যান এবং অপরাধিকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেন । মহিলা অভিযোগ দাখিল করেন এবং পরে চালককে গ্রেফতার করা হয়। অভিযোগকারী , ৩২ বছরের বয়সী মহিলা বলে জানা গিয়েছে । প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের সাউথ সিটি মলের একটি দোকানে কাজ করেন তিনি । বাড়ি ফেরার পথে গাড়ি থেকে লাফিয়ে পড়ার কারণে ওনার বাঁ পায়ে চোট লেগেগেছিলো বলেও জানা গিয়েছে ।
একজন অটো চালক ওনাকে ঘরে পৌঁছে দিয়েছিলেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here